আজ ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

করোনা: ভয় জাগাচ্ছে সীমান্তবর্তী জেলা জয়পুরহাটও রাজশাহী 

অনলাইন ডেস্ক: ভারতের সীমান্তবর্তী জেলা চাঁপাইনবাবগঞ্জে কয়েক দিন ধরে করোনা পরিস্থিতি ভয় জাগাচ্ছিল। গতকাল সোমবার হঠাৎ করেই সংক্রমণ একেবারে নিম্নমুখী দেখা গেছে। এদিন সংক্রমণের হার ছিল ১৯ শতাংশ। তবে সীমান্তের আরেক জেলা জয়পুরহাটে বাড়ছে সংক্রমণ। এ জেলায় রোববার এক দিনে ২২৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬১ জনের। বিশেষ করে সীমান্তঘেঁষা পাঁচবিবি উপজেলায় সংক্রমণ বাড়ছে আশঙ্কাজনক হারে। পরিস্থিতি অবনতির দিকে যাচ্ছে বাগেরহাটেও। এ জেলায় সংক্রমণের হার ছাড়িয়েছে ৪৫ শতাংশের ওপরে। মোংলায় এই হার ৭০ শতাংশের ওপরে।

এদিকে, নওগাঁয় লকডাউনে ঢিলেঢালা ভাব লক্ষ্য করা গেছে। লকডাউনের তৃতীয় দিন পার করেছে সাতক্ষীরা। এখানে গত ২৪ ঘণ্টায় ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৫০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সংক্রমণ লাফিয়ে বাড়ছে নাটোরেও। গতকাল এখানে সংক্রমণের হার ছিল ৬৭ দশমিক ৩০ শতাংশ। গত রোববার এই হার ছিল ৫১ শতাংশ। এ জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৫২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৫ জন পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন। সংক্রমণ বাড়তে থাকায় কঠোর বিধিনিষেধ আরোপের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দিনাজপুরে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটি। করোনার ‘ডেলটা ধরন’ বাংলাদেশে উদ্বেগজনক হারে ছড়িয়ে পড়লেও কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় সীমান্ত লাগোয়া এলাকায় দুই দেশের নাগরিকদের আনাগোনা, মেলামেশা থামেনি, যা আতঙ্কের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এখানে।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী বিভাগে সর্বোচ্চ সংখ্যক ৬০৭ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। আগের দিনের চেয়ে ১০৫ জন শনাক্ত রোগী বেড়েছে। আগের দিন ছিল ৫০২ জন। এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। ব্যুরো, নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

রাজশাহী :বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের অফিস থেকে পাঠানো প্রতিবেদনে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় পিসিআর ল্যাব, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ও জিন এক্সপার্ট মেশিনে তিন হাজার ৩৪৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে ৬০৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। বিভাগে করোনা শনাক্ত হওয়ার পর থেকে এক দিনে এটাই সর্বোচ্চ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিভাগীয় সহকারী পরিচালক নাজমা আক্তার স্বাক্ষরিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, নতুন ৬০৭ জন নিয়ে বিভাগে শনাক্ত করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৮ হাজার ৪৩১। নতুন শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে রাজশাহী জেলায় ২৭০ জন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ শনাক্ত হয়েছে নওগাঁয় ১১৯ জন। এ ছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৭৫, নাটোরে ৩৫, জয়পুরহাটে ৬১, বগুড়ায় ১৬, সিরাজগঞ্জে ১৫ ও পাবনায় ১৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। রামেক হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া সাতজনের মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জের তিনজন, রাজশাহী, নওগাঁ, নাটোর ও পাবনার একজন করে।

জয়পুরহাট :এ জেলায় করোনা সংক্রমণের হার প্রতিদিন বাড়ছে। বিশেষ করে জেলার পাঁচবিবি উপজেলা ভারতের সীমান্তঘেঁষা হওয়ায় এখানে সংক্রমণ বাড়ছে আশঙ্কাজনক হারে। এ জেলায় শনিবার সবচেয়ে বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ছিল ৩৮ দশমিক ২৩। ১৩৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ হয়েছেন ৫২ জন। পাঁচবিবি উপজেলায় আক্রান্তের হার ছিল ৬০ শতাংশ। এ উপজেলায় ৩০ জনের মধ্যে শনাক্ত হয়েছেন ১৮ জন। তবে জেলায় রোববার শনাক্তের হার কিছুটা কমেছে। এদিন ২২৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬১ জনের।

পাঁচবিবি উপজেলা সদরে গরুর হাটে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের অবাধ আসা-যাওয়ার কারণেই দ্রুত করোনা ছড়িয়ে পড়ছে বলে মনে করছেন পাঁচবিবি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনিরুল শহীদ মুন্না। এদিকে, পাঁচবিবিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোকলেমা খাতুন (৬৫) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।

বাগেরহাট :জেলায় সংক্রমণের হার ছাড়িয়েছে ৪৫ শতাংশের ওপরে। মোংলায় এই হার রয়েছে ৭০ শতাংশের ওপরে। সচেতন মহল মনে করছে, বাগেরহাটে এই মুহূর্তে করোনার যে পরিস্থিতি, তাতে নির্বাচন দিলে আগামীতে আরও চরম ঝুঁকির মুখে পড়তে হবে। গত ২ জুন নতুন করে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার পর প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা ভোটারদের বাড়ি বাড়ি যাওয়া শুরু করেছেন। রোববারের রিপোর্ট অনুযায়ী, ২৪ ঘণ্টায় বাগেরহাট জেলায় নতুন করে আরও ৫৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন একজন। এ নিয়ে বাগেরহাটে এক হাজার ৭৫২ জনের করোনা শনাক্ত হলো। মৃত্যু হয়েছে ৪৫ জনের। এদিকে, মোংলায় শনিবার করোনা শনাক্তের হার ৭১ শতাংশ থাকলেও গত দু’দিনে তা নেমে ৫২ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে। রোববার ৩৮ জনে ২০ ও সোমবার ২৪ জনে ১৪ জন শনাক্ত হয়েছেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ :গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩৫০টি, শনাক্ত হয়েছেন ৬৮ জন, যা শতকরা প্রায় ১৯ ভাগ। জেলায় লকডাউন চলাকালে সোমবার করোনা সংক্রমণ ছিল সর্বনিম্ন। এদিকে, সোমবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভায় লকডাউন বৃদ্ধি বা সমাপ্তির বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত হবে বলে জানিয়েছেন জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব ও সিভিল সার্জন ডা. জাহিদ নজরুল চৌধুরী।

নওগাঁ :জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১১৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৯ দশমিক ৯৭ শতাংশ। গত দুই সপ্তাহের ব্যবধানে আক্রান্তের দিক থেকে এটি সর্বোচ্চ রেকর্ড। গত ২৬ জুন এক দিনে আক্রান্ত হয়েছিল ৮৫ জন। জেলার ডেপুটি সিভিল সার্জন মঞ্জুর-এ মোর্শেদ বলেন, উন্মুক্ত স্থানে যে এক হাজার ১১০ জন নমুনা দিয়েছেন, তাদের অধিকাংশেরই কোনো উপসর্গ ছিল না। তাদের মধ্যে ৮ দশমিক ৫৭ শতাংশই করোনা পজিটিভ। এ পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৪৬ জন মারা গেছেন।

সাতক্ষীরা :গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৫০ জন পজিটিভ হয়েছেন। এ ছাড়া একই সময়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরও দু’জন। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, সাতক্ষীরায় ৩৭১ জন করোনা রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ পর্যন্ত এক হাজার ৮৮৬ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন, মারা গেছেন ৪৯ জন।

নাটোর :সোমবার নাটোরে সংক্রমণের হার বেড়ে সর্বোচ্চ ৬৭ দশমিক ৩০ শতাংশে গিয়ে ঠেকেছে। রোববার এই হার ছিল ৫১ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৫ জন শনাক্ত হয়েছেন। জেলায় মোট আক্রান্ত এক হাজার ৮৯৮ জন। এ পর্যন্ত মারা গেছেন ২৭ জন। সংক্রমণ ঠেকাতে প্রশাসনসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানিয়েছে সচেতন মহল।

দিনাজপুর :এ জেলায় বেড়েছে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার। এ অবস্থায় কঠোর বিধিনিষেধ আরোপের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটি। গত ২৪ ঘণ্টায় দিনাজপুরে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনায় আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় ১৭০ জনের করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে, যার মধ্যে শনাক্ত হয়েছে ৩৩ জনের। শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৪১ শতাংশ।

এ ছাড়া যশোরে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৩৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত হয়েছেন ৬৪ জন। খুলনার রূপসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবাইয়া তাছনিমসহ উপজেলা প্রশাসনের সাত কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনা পজিটিভ হয়েছেন।

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category