আজ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

“শিক্ষকদের সঠিক মর্যাদা এখন সময়ের দাবি ” – মাসুমুর রহমান

“শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড হলে, মেরুদণ্ড গড়ার কারিগর হচ্ছে শিক্ষক” একটি জাতি বির্নিমানে শিক্ষকদের ভূমিকা সবচেয়ে বেশি।একজন শিক্ষক একজন ছাত্র কে শারীরিক, মানসিক, সামাজিক, মানবিক, নৈতিক, নান্দনিক, আধ্যাত্নিক,আবেগিক,দেশাত্মবোধ,বিজ্ঞানমনস্কতায়,সৃজনশীলতায়,উন্নত স্বপ্ন দর্শনে উদ্বুদ্ধ করেন। শিক্ষকের কাছ থেকে শিক্ষা নিয়ে তৈরি হয়,বৈজ্ঞানিক, ইঞ্জিনিয়ার,চিকিৎসক, গবেষক, মন্ত্রী, এমপি,চেয়ারম্যান,মেম্বার, সচিব,ডিসি,এসপি,বিচারপতি, বিচারক, পুলিশ, সেনাবাহিনী,নৌবাহিনী, বিমানবাহিনী সহ দেশের সর্বোচ্চ বিভাগ থেকে শুরু করে সর্বনিম্ন পর্যায়ে কর্মরত কর্মকর্তা ও কর্মচারী। অথচ শিক্ষকদের মর্যাদা কম,শিক্ষকদের বেতন গ্রেড কম,বেতন স্কেল কম।শিক্ষা গুরুর মর্যাদা শুধু বাদশাহ আলমগীরের কবিতায় লিপিবদ্ধ আছে। যার সাথে বাস্তবে কোন মিল নেই। শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য, বেতন কাঠামো পরিবর্তন করে শিক্ষকের মর্যাদা বৃদ্ধি করা এখন সময়ের দাবি।

শিক্ষকদের আত্নমর্যাদা ও সামাজিক মর্যাদা বৃদ্ধি করার জন্য কিছু পদক্ষেপ নেওয়া অতি জুরুরি প্রয়োজন।
যেমনঃ
১.শিক্ষকদের বেতন স্কেল বৃদ্ধি করা,
২.শিক্ষকদের জন্য রেশন ব্যবস্থা চালু করা,
৩.শিক্ষকদের বিভিন্ন গণপরিবহনে ভাড়া হাফ করে দেওয়া,
৩.চিকিৎসার ক্ষেত্রে হাসপাতালে সিটের বরাদ্দ করা,
৪.চিকিৎসা খরচ হাফ করে দেওয়া,
৫. শিক্ষকদের নিরাপত্তার জন্য একটি আইন পাস করা,ইত্যাদি।
শিক্ষার উন্নয়নে, শিক্ষার মান বৃদ্ধি করতে, মেধাবী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের শিক্ষকতা পেশায় ধরে রাখতে শিক্ষকদের মর্যাদা বৃদ্ধি করা এখন সময়ের দাবি।
শিক্ষকের জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন হলে শিক্ষার মান উন্নত হবে,আর শিক্ষার মান উন্নয়ন হলেই একটি জাতি উন্নত হবে।

মোঃ মাসুমুর রহমান মাস্টার (এমবিএ)
সহকারী শিক্ষক
আহুতিয়া আলীমউদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,
পাকুন্দিয়া উপজেলা, কিশোরগঞ্জ।

Facebook Comments Box

Comments are closed.

     More News Of This Category