আজ ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

৩য় গণবিজ্ঞপ্তি চেয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট খোলা চিঠি

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,

আসসালামু আলাইকুম। লেখনীর প্রারম্ভে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি হাজার বছরের বাঙালি জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান, বাঙালি জাতির মুক্তির দূত, মহান স্বাধীনতার স্বপ্নদ্রষ্টা, বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ জাতীয় চার নেতাকে। দেশের স্বাধিকা থেকে স্বাধীনতার দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় আত্মাহুতি দানকারী সকল শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের কে।

মাননীয় দেশরত্ন ,
আপনি বঙ্গবন্ধু কন্যা, আপনি বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন সারথি। আপনার হাত ধরে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। আপনার হাত ধরেই পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, গভীর সমুদ্রে টানেল সহ সর্বস্তরে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। আপনি ২০২১ সালে বাংলাদেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালে বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে রুপান্তরের মিশন হাতে নিয়েছেন।

প্রিয় বঙ্গদরদী,
একটি জাতিকে উন্নয়নের শিখরে পৌঁছে দিতে হলে সেই জাতিকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। আপনাকে দুঃখের সাথে জানাচ্ছি, করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে এদেশের শিক্ষাখাত অনেকটা বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে, তার মাঝে আবার দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে প্রায় লক্ষাধিক শিক্ষকের শূন্যপদ রয়েছে। আপনার সরকারের একটা মহৎ উদ্যোগ ছিল এনটিআরসিএ এর মাধ্যমে মেধাক্রম অনুযায়ী শিক্ষক নিয়োগ দেয়া। এরমধ্যে এনটিআরসিএ প্রতিবছর দুটি করে নিবন্ধন পরীক্ষা গ্রহণ করে থাকে, কিন্তু এযাবৎকাল পর্যন্ত মাত্র দুটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগ দিয়েছেন।২০১৯সালে ৩য় গণবিজ্ঞপ্তি হওয়ার কথা থাকলেও ২০২০ অতিক্রান্ত হতে চলেছে, কিন্তু একটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিতে পারতেছে না এনটিআরসিএ। এদিকে এনটিআরসিএ নিবন্ধিত শিক্ষকদের বয়স সীমা ৩৫ বছর নির্ধারণ করে দিয়েছেন। নিয়োগ না দেয়ায় অনেক চাকরি প্রার্থীদের বয়স ৩৫+ হচ্ছে প্রতিনিয়ত, যার ফলে শিক্ষক হওয়ার স্বপ্ন, চাকরি পাওয়া পাশাপাশি পরিবারের সদস্যদেরকে হতাশা এবং অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে ঠেলে দিচ্ছেন। আজকে দেশের প্রায় ২ লক্ষ চাকরিপ্রত্যাশী রয়েছেন, তাদের এই অসহায়ত্ব দেখে নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীরা পড়ালেখা/ উচ্চশিক্ষার অনুপ্রেরণা হারিয়ে ফেলছে।

আমাদের স্বপ্ন সারথি,
আপনার চোখ দিয়ে আমরা কোটি কোটি তরুণ স্বপ্ন দেখি। আমরাও ২০৪১ সালে বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে দেখতে চাই, সেই জন্য আজকে আপনার মিশনকে সফল করতে আমরা তরুন যারা রয়েছি, আমাদের মেধা ও শ্রম কাজে লাগিয়ে ২০৪১ এর মিশনকে বাস্তবায়ন করতে চাই।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আমাদের হাসু আপা,
আপনি বলেছেন ঘরে ঘরে চাকরি দিবেন- আপনার কাছে আমাদের আকুল আবেদন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের উদ্যোগ হাতে নিলে – যেমন করে ঘরে ঘরে চাকরি হবে, তেমনি করে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে লক্ষাধিক শিক্ষকের শূন্য পদ পূরণ হবে। পাশাপাশি করোনাকালীন সময়ের শিক্ষাব্যবস্থার যেটুকু ঘাটতি হয়েছে তা পুষিয়ে নিয়ে আধুনিক, স্বনির্ভর, প্রযুক্তিগত , দেশপ্রেম এবং যুগোপযোগী শিক্ষা দানের মাধ্যমে ২০৪১ রূপকল্প বাস্তবায়নে সহায়ক হবে বলে আশা করি।
প্রিয় মমতাময়ী,
আপনি শুধু বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নন, আপনি এদেশের অসহায় মানুষের পাশে নিজেকে উজাড় করে মাতৃস্নেহ দিয়ে আচলের নিচে ঠাই দিয়ে থাকেন। আপনি একজন মমতাময়ী মা, আপনার কাছ থেকে এ দেশকে সামনে এগিয়ে নেওয়ার জন্য প্রেরণা পাই, আপনার কাছ থেকেই দেশকে ভালোবাসার শিক্ষা পাই, আপনার চোখ দিয়েই আগামীর সমৃদ্ধশালি বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখি – যেখানে থাকবেনা জঙ্গিবাদ, যেখানে থাকবে না মানুষের হাহাকার, যেখানে থাকবে না দুর্নীতির থাবা কিংবা মাদকের বিষাক্ত কালো ধোঁয়া।
সেই বাংলাদেশ আপনার দিকেই তাকিয়ে আছে।

জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু জয়তু শেখ হাসিনা

অনুরোধক্রমে –
মোঃ নাসির উদ্দিন
সভাপতি
৩য় গন বিজ্ঞপ্তি প্রত্যাশী ফোরাম
কিশোরগঞ্জ জেলা সমন্বয় কমিটি।

মানব চেতনা/এইচএম 

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category