আজ ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

মসজিদের পাশে মুনমুনের নাচ! যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড়

অনলাইন ডেস্ক:টাঙ্গাইলের সখিপুরে পলাশতলি বাজার মসজিদের সামনে চিত্রনায়িকা মুনমুনের নাচের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। উপজেলার পলাশতলী বাজার মসজিদের সামনে কুরুচিপূর্ণ এ নাচের আসর বসানো হয়। নাচের ভিডিওটি ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে। ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর দেশজুড়ে তীব্র ক্ষোভ দেখা দেয়। ফেসবুকে একেকজন একেক ধরনের মন্তব্য লিখে ধিক্কার জানায়।

জানা যায়, গত শুক্রবার চিত্রনায়িকা মুনমুনকে সখিপুর পৌরশহর ও স্থানীয় কিছু লোক উপজেলার পলাশতলীতে নৌকা ভ্রমনে নিয়ে আসে। ভ্রমণ শেষে বাজার মসজিদের সামনে সাউন্ড সিস্টেম বাজিয়ে নায়িকা মুনমুনকে নিয়ে নাচের আসর বসানো হয়। পরে সেই নাচের ভিডিও ফেসবুকে মুহূর্তেই ভাইরাল হয়। ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যায়, গানের তালে তালে চিত্রনায়িকা মুনমুন মসজিদের খুবই কাছে কুরুচিপূর্ণ নাচ পরিবেশন করছেন। আর কিছু উৎসুক জনতা চেয়ারে বসে সেই নাচ দেখছেন ও মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করছেন।ফেসবুক সেন্ট করা ছবি ও ভিডিও দেখে দেখা যায়,মসজিদের সামনে নায়িকা মুনমুনের ওই নাচের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সখিপুর পৌর আ.লীগ সভাপতি ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো.শফিউল ইসলাম কাজী বাদল,তার ছোট ভাই কাজী শহীদ, পৌর ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো.মিল্টন মিয়া,সখিপুর মাইক্রোবাস মালিক সমিতির সভাপতি স্বপন,সেক্রেটারী বাবুল মেলেটারি,শাজ্জাদ হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টের পরিচালক রাসেল,কাকড়াজান ইউনিয়ন আ.লীগ নেতা নাজমুল হাসানসহ অসংখ্য লোক। পরে যার যার ফেসবুকে মুনমুনের নাচের ভিডিও ও ছবি ছেড়ে স্ট্যাটাস দিলে বিষয়টি ফেসবুকে ভাইরাল হয়।
স্থানীয়রা বলছেন, এটি পবিত্র একটি স্থাপনার অবমাননা। মসজিদের সামনে এমন নাচ কাম্য নয়। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে প্রশাসনের নিকট জোর দাবি জানান তারা। এদিকে সখিপুর উপজেলা আলেম ওলামা পরিষদ মসজিদের সামনে নগ্ন নৃত্যের প্রতিবাদে মঙ্গলবার মানবন্ধন করবেন-এ সংবাদ পেয়ে নগ্ন নৃত্যের আয়োজকরা আলেম ওলামা পরিষদের নিকট ক্ষমা চায় এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের কোন ঘৃন্য কাজ করবে না বলে তওবা করে। তওবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা আলেম ওলামা পরিষদের সভাপতি সথিপুর বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা সাইফুল্লাহ বেলালী। একই সাথে দুঃখ প্রকাশ,ক্ষমা ও বিভ্রান্তি না ছড়ানোর অনুরোধ করে কারো নাম উল্লেখ না করে েভ্রমন আয়োজক ব্যানারে সোমবার স্থানীয় একটি অনলাইনে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে।

কাকড়াজান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম বিদ্যুৎ জানান, বহিড়াগতরা নৌকা ভ্রমণে এসে এ ন্যাক্কারজনক কাজ করেছে। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। তথ্যসূত্রঃ ইনকিলাব
মানব চেতনা/ এমআর

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category